সর্বশেষ সংবাদ

‘সর্বনাশা ইয়াবা’ সিনেমার নায়িকার ক্ষেত্রে

‘সর্বনাশা ইয়াবা’ সিনেমার নায়িকার ক্ষেত্রে


একসময় অভিনয় শুধু শখ বা নেশার বসেই করা হত। সময়ের পরিবর্তনে এখন অভিনয় অভিনেতা অভিনেত্রীদের পেশা হয়ে দাঁড়িয়েছে। বিশেষ করে টিভি বা সিনেমার ক্ষেত্রে পেশাদারিত্ব শুরু থেকেই চলে আসছে। এখানে পেশাদারিত্ব দক্ষতা নয় পারিশ্রমিক গ্রহনকারী অভিনয়শিল্পীর ক্ষেত্রে বোঝানো হয়েছে। আর যদি কাজ শেষে ন্যায্য পারিশ্রমিক না দেয়া হয় সেটা সত্যিই দুঃখজনক। যেমনটা হয়েছে ‘সর্বনাশা ইয়াবা’ সিনেমার নায়িকার ক্ষেত্রে।

নায়িকা প্রসূনের অভিযোগ অভিনয় করে পারিশ্রমিক পাননি। অন্যদিকে প্রযোজকের অভিযোগ সিডিউল ফাঁসিয়েছেন নায়িকা। পরিচালকের আরো অভিযোগ এসব কথা সাংবাদিকদের বলে তার সম্মানের বারোটা বাজিয়েছেন নায়িকা। এতসব অভিযোগ আর পাল্টা অভিযোগের নিষ্পত্তি করতেই শনিবার এফডিসিতে ‘সর্বনাশা ইয়াবা’র পরিচালক কাজী হায়াত আর ছবির নায়িকা প্রসূন আজাদকে নিয়ে একটি মিটিং এর আয়োজন করা হয়। সেখানে পারিশ্রমিকের বদলে ক্ষমা চেয়েছেন অভিনেত্রী প্রসূন।
মিটিং প্রসঙ্গে প্রসূন জানান, ‘পরিচালক সমিতি থেকে চিঠি দিয়ে আমাকে মিটিং এর কথা আগেই জানানো হয়। মিটিংয়ে কাজী হায়াতের কাছে আমি ক্ষমা চেয়ে নিয়েছি। যদিও দোষটা দু’জনেরই । কিন্তু তিনি সিনিয়র মানুষ, তাই আমাকে তার কাছে ক্ষমা চাইতে হয়েছে।’
তিনি আরো বলেন, ‘এই ঘটনার ফলে আমি আর্থিক দিক থেকে আর কাজী হায়াত সম্মানের দিক থেকে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছেন। তবে, এর থেকে নতুনদের একটা জিনিস শেখার আছে। পাঁচ টাকার বিনিময়ে অভিনয় করলেও তা যেন লিখিত থাকে।’
Designed by Copyright © 2014
Powered by Blogger.