সর্বশেষ সংবাদ

গুবলু-গাবলু টু স্লিম-ট্রিম রূপান্তর পরিণীতি চোপড়ার চেহারায়

গুবলু-গাবলু টু স্লিম-ট্রিম রূপান্তর পরিণীতি চোপড়ার চেহারায়


গুবলু-গাবলু টু স্লিম-ট্রিম। এমনই রূপান্তর পরিণীতি চোপড়ার চেহারায়। ছ'মাস পুরো বেপাত্তা ছিলেন। আচমকা সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের ছবি পোস্ট করেছেন। আর তা দেখেই চমকে গিয়েছেন সবাই। ৬০ কেজি থেকে সাইজ জিরো লুক!
নাহ! কেউ প্রথমে চিনতে পারেননি পরিণীতিকে। আলিয়া ভাট-শ্রা কাপুরের মতো ‘স্কিনি' বনে গিয়েছেন একবারে। তাঁর রোগা হওয়ার রহস্য কী? রহস্য উন্মোচন নিজেই করেছেন নায়িকা। জানিয়েছেন, ওজন কমাতে মেনে চলেছেন কঠোরতম ডায়েট। কীভাবে সেই ডায়েট মানবেন তা শিখতে এক মাসের ট্রেনিং নিয়েছেন অস্ট্রিয়ায়। ‘ডিটক্স প্রোগ্রাম' নামে ওই ট্রেনিং ক্যাম্পে যোগ দেওয়ার খরচ আনুমানিক পাঁচ থেকে দশ লাখ টাকা। শুধু পরি নন, আদিত্য কাপুর, যশ রাজ ফিল্মের প্রধান আদিত্য চোপড়া ও রানি মুখার্জিও নাকি ডিটক্স প্রোগ্রামে গিয়ে রোগা হওয়ার উপায় শিখে এসেছেন। বলিউড সূত্রে খবর, ট্রেনিং শুরুর আগে রোগীকে প্রচুর টেস্ট করাতে হয়। এইসব টেস্টের রিপোর্ট দেখে বিশেষজ্ঞরা বুঝে নেন রোগীর ধাত। তারপর তাঁর ওজন ও ধাত বুঝে তৈরি করা হয় স্পেশাল ডায়েট চার্ট। তবে রোগীকে সেই চার্ট কঠোরভাবে মেনে চলতে হয়। অসম্ভব জাঙ্ক ফুড খেতে ভালবাসতেন পরিণীতি। সঙ্গে ছিল মোটার ধাতও। বলিউডে ভাল অভিনেত্রী হিসাবে নাম করলেও গোলগাল চেহারার জন্য সুন্দরী-তন্বী নায়িকাসুলভ রোল পাচ্ছিলেন না। ‘হট' ড্রেসে পরিকে ভাল লাগে না, এমন নেগেটিভ তকমা মুছে ফেলতেই শরীর থেকে মেদ ঝরিয়ে ‘ফ্যাট টু ফিট' হয়ে গেছেন ‘ইশকজাদে' স্টার।
Designed by Copyright © 2014
Powered by Blogger.