সর্বশেষ সংবাদ

যুদ্ধ দীপিকার

     

মানসিক অসুস্থতার বিষয়টিকে গুরুত্ব দেওয়া এবং সচেতনতা বাড়ানোর পক্ষে বেশ দৃঢ় অবস্থান নিয়েছেন বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী দীপিকা পাডুকোণ। সম্প্রতি এই অভিনেত্রী জানিয়েছেন, বাস্তবতা হচ্ছে, আমরা খুব চাপের মধ্যে জীবনযাপন করি বটে; কিন্তু আমাদের মনে রাখতে হবে— হাসি আর ভালোবাসায় বাঁচার মতো বাঁচাটা খুব

জরুরি।

 

 


মানসিক অসুস্থতা এবং এ সম্পর্কে সচেতনতা বাড়ানোর লক্ষ্যে ‘লিভ, লাভ অ্যান্ড লাফ’ নামে একটি ফাউন্ডেশন করেছেন দীপিকা। তাঁর এই ফাউন্ডেশনের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে মানসিক অসুস্থতা ও এর নিরাময় সংক্রান্ত প্রচার চালানোর পক্ষে বক্তব্য রাখেন দীপিকা।

‘লিভ, লাভ অ্যান্ড লাফ’ নামে তাঁর এই প্রতিষ্ঠানটির উদ্বোধনের সময় মানসিক অসুস্থতার বিষয়টি সম্পর্কে সবার আরও সচেতন হওয়া এবং এ সংক্রান্ত বিষয়ে সচেতনতা ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য ব্যাপক প্রচারের প্রয়োজনীয়তার কথাও জানান দীপিকা। অক্টোবরের ১০ তারিখে আয়োজিত দীপিকার এই প্রতিষ্ঠানের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ভারতের মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে দীপিকা বলেন, ‘আমার মতো যাদের উৎকণ্ঠা আর দুশ্চিন্তার অভিজ্ঞতা আছে তাঁদের এ বিষয়টা জানা খুব প্রয়োজন যে, কোথাও না কোথাও আশা অবশ্যই আছে।’

এ প্রসঙ্গে দীপিকা আরও জানান, কীভাবে তাঁর এমনই এক দুঃসময়ে বাবা-মা, স্বজন ও কাছের মানুষেরা তাঁকে সাহায্য করেছিলেন, তাঁর পাশে দাঁড়িয়েছিলেন।

অনুষ্ঠানে দীপিকার বাবা প্রকাশ পাডুকোণ এবং মা উজ্জ্বলা পাডুকোণও উপস্থিত ছিলেন।

দীপিকার মা উজ্জ্বলা পাডুকোণ এ প্রসঙ্গে বলেন, আমি আমার বড় মেয়ের এমন সমস্যার বিষয়টি যখন প্রথম লক্ষ্য করি, সে সময় ভেবেছিলাম; বোধ হয় এটি প্রেম সম্পর্কিত। পরে যখন বুঝেছি যে বিষয়টি দীপিকার মানসিক এবং শারীরিক অবসাদের কারণে; নানা রকমের চাপের কারণে সৃষ্টি হয়েছে, আমরা তখন একজন ভালো মনোরোগ বিশেষজ্ঞের কাছেই গিয়েছিলাম।

দীপিকার বাবা প্রকাশ পাডুকোণ বলেন, আমি আমার মেয়ের অসুস্থতা নিয়ে খুব চিন্তিত হয়ে পড়েছিলাম। আমরা চাইছিলাম সে যেন দ্রুত সুস্থ ও স্বাভাবিক হয়ে ওঠে।

এদিকে, ‘পিকু’খ্যাত অভিনেত্রী দীপিকা জানিয়েছেন, যে মানসিক অবসাদ তাঁকে গ্রাস করেছিল এর কারণে তাঁর ভেতরে অনেক পরিবর্তন ঘটেছে। তিনি জানান, অসংখ্য অভিজ্ঞতার ভেতর দিয়েই আমাদের জীবনের পথ পাড়ি দিতে হয়। যা আমাদের অনেক কিছু শেখায়, একজন ভালো ও পরিণত মানুষ হয়ে উঠতে সাহায্য করে।
Designed by Copyright © 2014
Powered by Blogger.