সর্বশেষ সংবাদ

ইউটিউবে আসিফ আকবরের 'ও প্রিয়া' ৭০ লাখেরও বেশিবার ভিজিট

ইউটিউবে আসিফ আকবরের 'ও প্রিয়া' ৭০ লাখেরও বেশিবার ভিজিট


ইউটিউব জনপ্রিয় ভিডিও দেখার চ্যানেল। ইন্টারনেটের দর্শকরা ইউটিউবে যান ভিডিও দেখতে। বাংলাদেশি সংগীত তারকাদের বর্তমান আশ্রয়স্থল মিউজিক ভিডিও। ইউটিউব ভিউজের ওপর নির্ভর করতে হয় সংগীত তারকাদের। এ ক্ষেত্রে বাংলাদেশের জনপ্রিয় সংগীত তারকা আসিফ আকবরই যেন ভিন্নতায় রয়েছেন। আসিফ আকবরের গানের ভিডিও দেখার জন্য নয়, শুধুমাত্র শোনার জন্য ভিজিট করা হয়েছে ৭০ লাখেরও বেশিবার। অর্থাৎ ইউটিউব থেকে আসিফ আকবরের একটি গান শোনা হয়েছে এখন পর্যন্ত ৭০ লাখের বেশি।   ২০০১ সালে প্রকাশিত প্রথম সংগীত অ্যালবাম 'ও প্রিয়া তুমি কোথায়'-এর মাধ্যমে ব্যাপক পরিচিতি ও জনপ্রিয়তা লাভ করেন আসিফ আকবর। এটি বাংলাদেশের ইতিহাসে ব্যাপক ব্যবসা সফল অ্যালবাম। এই একটি গানই আসিফকে অনবদ্য করে তোলে। ২০০১ সালে প্রকাশিত ইথুন বাবুর কথা, সুর ও সংগীতে ও প্রিয়া গানটি এখনো প্রতিনিয়ত ইউটিউব থেকে শোনা হচ্ছে। কোনো অফিসিয়াল চ্যানেল থেকে নয়। সব আন অফিসিয়াল আসিফ ভক্তদের নিজস্বভাবে আপলোড করা চ্যানেলে। ভিডিও নয় শুধু একটা ছবি ব্যবহার করেই এই গান আপলোড করা হয়। ইতিমধ্যে বেশকিছু চ্যানেলে আপলোড করা হয়েছে এই গানটি। ২০০১ সালে গানটি মুক্তি পেলেও এক ভক্ত ইউটিউব চ্যানেলে প্রথম আপলোড করেন ২০০৯ সালে। 'ও প্রিয়া তুমি কোথায়' একটি চ্যানেলে সর্বোচ্চ ১৫ লাখ বার শোনা হয়েছে। এরপর বেশকিছু চ্যানেলে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন ইমেজ ব্যবহার করে গানটি আপলোড করা হয়। চ্যানেলগুলোর গানের ভিউজ যোগ করলে ৭০ লাখ পেরিয়ে যায়। যা একটি অডিও গানের জন্য বিস্ময়কর হলেও 'ও প্রিয়া তুমি কোথায়' এর জন্য বিস্ময়কর ভাবলে ভুল হবে। কেন না ২০০১ সালে এই গানের জনপ্রিয়তা বাংলাদেশের সংগীত জগতে বিস্ময়ের সীমা অতিক্রম করে ফেলে। পরে এই গানটিকে কেন্দ্র করে ও প্রিয়া তুমি কোথায় নামে একটি চলচ্চিত্রও নির্মাণ করা হয়।
Designed by Copyright © 2014
Powered by Blogger.