সর্বশেষ সংবাদ

মিস পুয়ের্তো রিকো বাদ হলেন মুসলিমবিরোধী মন্তব্য করায়!

শোবিজ নিউজঃ টুইটারে মুসলিমবিরোধী মন্তব্যের অভিযোগে ‘মিস আমেরিকা’ প্রতিযোগিতা থেকে বাদ পড়েছেন মিস পুয়ের্তো রিকো ডেসটিনি বেলেজ। আগামী বছর অনুষ্ঠেয় মিস আমেরিকা প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়ার কথা ছিল পুয়ের্তো রিকোর মুকুটজয়ী ২০ বছর বয়সী এই তরুণীর।

মিস পুয়ের্তো রিকো বাদ হলেন মুসলিমবিরোধী মন্তব্য করায়!

ডেইলি মেইল জানায়, টুইটারে হলিউড পরিচালক মাইকেল মুরের একটি ছবিতে মুসলিমবিরোধী বিভিন্ন মন্তব্য করেন মিস পুয়ের্তো রিকো। ওই ছবিতে দেখা যায়, ‘আমরা সবাই মুসলমান’ ব্যানার নিয়ে ট্রাম্প টাওয়ারের নিচে দাঁড়িয়ে আছেন মুর। কয়েকদিন আগে ‘যুক্তরাষ্ট্রে মুসলমান প্রবেশ নিষিদ্ধের প্রস্তাব করেন রিপাবলিকান দল থেকে আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে মনোনয়ন প্রত্যাশী ডোনাল্ড ট্রাম্প। এর প্রতিবাদ জানাতেই ব্যানার নিয়ে ট্রাম্প টাওয়ারের নিচে দাঁড়িয়েছিলেন মাইকেল মুর।

মিস পুয়ের্তো রিকো বাদ হলেন মুসলিমবিরোধী মন্তব্য করায়!মাইকেল মুরের ছবির নিচে মিস পুয়ের্তো রিকো ডেসটিনি বেলেজ মন্তব্য করেন, ‘মুসলমানরা আমাদের সংবিধান ব্যবহার করে যুক্তরাষ্ট্রে সন্ত্রাসবাদ চালাচ্ছে এবং গ্যাস স্টেশন গড়ছে।’ অপর এক মন্তব্যে বেলেজ লিখেছেন, ‘মুসলমানরা যা কিছু করেছে তা হলো তেল দেওয়া এবং দেশের সন্ত্রাসবাদ ও আরো অনেক কিছু।’ অপর এক মন্তব্যে তিনি লিখেছেন, ‘ইহুদি, খ্রিস্টান, মুসলমান কখনো এক হতে পারে না। ইহুদি ও খ্রিস্টানদের পবিত্র গ্রন্থে সন্ত্রাসবাদ নেই।’

মিস পুয়ের্তো রিকো বাদ হলেন মুসলিমবিরোধী মন্তব্য করায়!মিস পুয়ের্তো রিকো ডেসটিনি বেলেজ মন্তব্যের পর পরই টুইটারসহ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সমালোচনার ঝড় ওঠে। তাঁর নামে হ্যাশট্যাগ হয় #nonosrepresentas, যাঁর অর্থ দাঁড়ায় ‘তুমি আমাদের প্রতিনিধিত্ব করো না’।

তীব্র সমালোচনার পরিপ্রেক্ষিতে মিস আমেরিকা প্রতিযোগিতার আয়োজনকারী প্রতিষ্ঠান প্রতিযোগিতা থেকে মিস পুয়ের্তো রিকো ডেসটিনি বেলেজকে বাদ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। অপরদিকে এক বিবৃতিতে মিস পুয়ের্তো রিকোর আয়োজক প্রতিষ্ঠান ওই সিদ্ধান্তের পক্ষে মত দিয়ে জানিয়েছে, যথাযথ কারণেই তাঁকে বাদ দেওয়া হয়েছে।
Designed by Copyright © 2014
Powered by Blogger.