সর্বশেষ সংবাদ

জয়া’র ভালোবাসার শহর

 
joyer-valobasar-sohor

প্রথমবাবের মতো স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন এপার-ওপার বাংলার জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান। এর নাম ‘ভালোবাসার শহর’ কিংবা ‘সিটি অব লাভ’। সিনেমাটি পরিচালনা করছেন কলকাতার সিনেমা 'ফড়িং' খ্যাত নির্মাতা ইন্দ্রনীল রায় চৌধুরী। এদিকে গতকাল ইউটিউবে সিনেমাটির মোশন পোস্টার প্রকাশিত হয়েছে।


আর সেটি জয়া তার সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকের ওয়ালে শেয়ার করেছেন। আর এর পর থেকেই কাজটির প্রশংসা জানিয়ে অনেকেই সেখানে কমেন্ট করছেন। এর উত্তরে জয়া লিখেছেন, এটা তো আমার ভীষণ প্রিয় একটা কাজ।’ এছাড়া জয়া একই পরিচালকের পরিচালনায় গত বছর জি বাংলা সিনেমায় দেখানো ‘একটি বাঙালি ভূতের গপ্পো’ ছবিতে অভিনয় করেছিলেন।
joyer-valobasar-sohor

‘ভালোবাসার শহর’ এ অভিনয় প্রসঙ্গে জয়া আরও জানিয়েছেন, ‘সময়ের দিক থেকে হিসেব কষলে ‘ভালোবাসার শহর– দ্য সিটি অফ লাভ’ একটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র। হয়ত ১৫ থেকে ২০ মিনিট দৈর্ঘ্যের সিনেমা হবে। কিন্তু আসলে এটা একটি সম্পূর্ণ সিনেমা। সিনেমাতে কাজের অনূভুতির মতোই একই রকম অনূভুতি এখানেও কাজ করেছে। আসলে একটি ব্যতিক্রম ইমেজে নিজেকে দেখা- যেমনটি একজন অভিনেতার হয়ত মঞ্চে কিংবা অন্য মাধ্যমে নিজেকে দেখে মনে হয়।’

জয়া আহসান ছাড়াও ছবিটিতে কলকাতার ঋত্বিক চক্রবর্তী, অরুণ মুখোপাধ্যায় এবং শর্মী সরকার অভিনয় করেছেন। সিনেমাটি এবারের ঈদ উপলক্ষে ইউটিউবে ইউনিফক্স এন্টারটেইনমেন্টের চ্যানেলে ছবিটি মুক্তি পাবে। এছাড়াও কলকাতায় মনোজ মিশিগানের পরিচালনায় 'আমি জয় চ্যাটার্জি' নামে একটি ছবির কাজ শেষ করেছেন জয়া। এতে তার বিপরীতে আছেন আবির চট্টোপাধ্যায়।

এছাড়া অরিন্দম শীলের পরিচালনায় ‘ঈগলের চোখ’ ছবিটিও মুক্তির অপেক্ষায় আছে তার। এতে জয়াকে দেখা যাবে শিবাঙ্গী চরিত্রে। জয়া আহসান বর্তমানে নূরুল আলম আতিকের পরিচালনায় ‘পেয়ারার সুবাস’ নামে নতুন একটি চলচ্চিত্রের শুটিং নিয়ে ব্যস্ত রয়েছেন। আজ থেকে সিরাজগঞ্জের বিভিন্ন লোকেশনে শুটিং শুরু হওয়ার কথা রয়েছে।
joyer-valobasar-sohor

এদিকে জয়াকে এ ছবিতে দেখা যাবে একেবারেই গ্রামের একটি মেয়ের চরিত্রে। অতি সাধারণ একটি মেয়ে যে স্বপ্ন নিয়ে ঢাকায় আসে। এভাবেই এগিয়ে যায় ছবিটির গল্প। এ চলচ্চিত্রে মূল চরিত্রে অভিনয় করবেন জয়া আহসান ও তারিক আনাম খান। এটি প্রযোজনা করছে আলফা-আই।



Designed by Copyright © 2014
Powered by Blogger.