সর্বশেষ সংবাদ

হুমায়ুন ফরীদি (Humayun Faridi)

আগামী ১৩ ফেব্রুয়ারি অভিনেতা হুমায়ুন ফরীদি (Humayun Faridi) এর পঞ্চম মৃত্যুবার্ষিকী। অবিস্মরণীয় এ অভিনেতার প্রতি শোবিজ এর শ্রদ্ধাঞ্জলি... 


হুমায়ুন ফরীদি (Humayun Faridi)

কিছু মানুষের জন্মই হয় শিল্পী হওয়ার জন্য। ঠিক সে রকম একজন মানুষ ছিলেন হুমায়ুন ফরীদি। তিনি শিল্পী হয়েই জন্মেছিলেন। একটা সাধারণ জিনিস কীভাবে অসাধারণ করে ফুটিয়ে তুলতে হয় সেটা জানতেন ফরীদি। 

একা একা যখন সময় কাটাই তখন প্রায়ই ফরীদির কথা মনে করে হাসি। এত ভালো কৌতুক বলতেন। যেখানেই যেতেন, সব সময়ই মাতিয়ে রাখতেন। আমি সব সময় ভাবতাম, মানুষের এত কৌতুক মনে থাকে কীভাবে! একদিন জিজ্ঞেস করেছিলাম, তখন ফরীদি বলেছিলেন, আরে, জীবনটাই তো একটা কৌতুক। ফরীদির সঙ্গে দীর্ঘদিন আমি ঢাকা থিয়েটারসহ বিভিন্ন মাধ্যমে কাজ করেছি। মঞ্চ, টেলিভিশন ও সিনেমায় আলোড়ন তোলা এই অভিনেতা অসাধারণ সব অভিনয়ের মাধ্যমে সব শ্রেণির দর্শকের কাছে অধিক জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন। বাংলা সিনেমায় খলনায়কের ভূমিকায় তিনি ছিলেন অসাধারণ। একটা সময় ছিল যখন টিভি নাটক মানেই ফরীদি। তারপর একটা সময় মানুষ শুধু হুমায়ুন ফরীদির অভিনয় দেখতে হলে যেতেন। সেই হুমায়ুন ফরীদি ২০০৩ সাল থেকে সিনেমাতে অভিনয় প্রায়ই ছেড়ে দিয়েছিলেন। অথচ ১৯৮৫ সালের দিকে ফরীদি অনুধাবন করেন তিনি আসলে অভিনয় ছাড়া আর কিছু করতে পারবেন না। অন্য কিছু থেকে রোজগার করে জীবন নির্বাহ করা সম্ভব নয়। তার একমাত্র অবলম্ব্বন কিংবা পুঁজি হচ্ছে অভিনয়। অনেকটা এমন দুর্বলতা থেকেই ১৯৯০ সাল থেকে শুরু করেন চলচ্চিত্রে যাত্রা। ফরীদির ভাষায়, আমার চলচ্চিত্র অভিনয়টাকে যে যাই বলুক না কেন, ওটা না করলে আমি বাঁচতে পারতাম না। তখন ফরীদি চলচ্চিত্রে কাজ না করলে হয়তো যাত্রা দলে ভিড়ে যেতেন- এমন প্রস্তুতিও ছিল তার মধ্যে। ২০১২ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারি আমরা তাকে হারিয়েছি চিরতরে। কিন্তু দুর্দান্ত নানা কর্ম আর তার অসাধারণ সব সৃষ্টিতে তিনি আছেন চির অমলিন হয়ে। তার দাপুটে অভিনয় তাকে বাঁচিয়ে রাখবে প্রজন্ম থেকে প্রজন্মান্তরে।

হুমায়ুন ফরীদি ছিলেন আমাদের আইকন। অভিনয়কে কীভাবে জীবন্ত করে উপস্থাপন করতে হয় তা জানতেন তিনি। আর ক'দিন পর ফরীদির পঞ্চম মৃত্যুবার্ষিকী। দেখতে দেখতে এতগুলো দিন চলে গেল। ফরীদির এত তাড়াতাড়ি চলে যাওয়া ঠিক হয়নি, আমাদের আরও অনেক কিছু পাওয়ার ছিল তার কাছ থেকে। নতুন যারা কাজ করছে তাদের বলব, ড্রেসআপ-গেটআপে কীভাবে নিজেকে চরিত্রের মতো করে তৈরি করে নিতে হয় তা হুমায়ুন ফরীদিকে দেখলে বোঝা যায়। নাটক, সিনেমা প্রত্যেক ক্ষেত্রে তিনি ছিলেন সফলতার শীর্ষে। নায়ক, ভিলেন বা কমেডি যে চরিত্রই করুন না কেন সেটাকে অভিনয় মনে হয়নি, এতটাই সাবলীল ছিল তার পর্দায় উপস্থিতি। বাস্তব জীবনেও সাবলীল ছিলেন তিনি। বাস্তবতার সঙ্গে সহজে মানিয়ে নিতে পারতেন। মানুষের মাঝে ভালো-খারাপ সবই থাকে। ফরীদির মাঝে অনেক ভালো গুণ ছিল, যা অনুকরণীয়।

ফরীদি কে নিয়ে এভাবেই বললেন অভিনেতা রাইসুল ইসলাম আসাদ



Designed by Copyright © 2014
Powered by Blogger.