সর্বশেষ সংবাদ

অগণিত মানুষের ভালোবাসাই আমাকে এগিয়ে চলার শক্তি জুগিয়েছে :সাবিনা ইয়াসমিন (Sabina Yesmin)

সাবিনা ইয়াসমিন (Sabina Yesmin) । বরেণ্য কণ্ঠশিল্পী। সম্প্রতি একমাত্র মেয়ে বাঁধনের সঙ্গে দ্বৈত গানের অ্যালবাম 'আবার দুজনে' প্রকাশ করেছেন তিনি। বর্তমানে তিনি ব্যস্ত নতুন গান ও স্টেজ শো নিয়ে। কথা হলো তার সঙ্গে-


অগণিত মানুষের ভালোবাসাই আমাকে এগিয়ে চলার শক্তি জুগিয়েছে :সাবিনা ইয়াসমিন (Sabina Yesmin)

'আবার দুজনে' অ্যালবামে আপনি মেয়ের সঙ্গে তিনটি গান করেছেন। কেমন লাগল মেয়ের সঙ্গে গান করে?

'আবার দুজনে' অ্যালবামটি মূলত বাঁধনের একক অ্যালবাম। সেখানে আমি ওর সঙ্গে তিনটি গানে কণ্ঠ দিয়েছি। বাঁধনের আরও কয়েকটি গানে আমার সঙ্গে গাওয়ার ইচ্ছে ছিল। পরে নানা কারণে সেটা আর হয়নি। প্রায় ১০ বছর আগে ওর প্রতিচ্ছবি অ্যালবামে চারটি গান করেছিলাম। নিজের সন্তানের সঙ্গে যে কোনো কাজই ভালো লাগে। অ্যালবামটি প্রকাশের পর অনেকেই গানগুলো নিয়ে আমাকে বলেছেন। 

অ্যালবামটিতে নাকি একটি ছবির গানও আছে?

হ্যাঁ। অ্যালবামে অনেক বছর আগে কামাল আহমেদের 'অনুরাগ' নামে একটি চলচ্চিত্রে 'কত ভালো লাগে এই দিন' শিরোনামে একটি গান করেছিলাম। সেই গানটি এই অ্যালবামের জন্য নতুন করে গেয়েছি। সুবল দাসের সুর-সঙ্গীতে ওই সময় গানটিতে আমার সঙ্গে কণ্ঠ দিয়েছিলেন সৈয়দ আবদুল হাদী ও খুরশীদ আলম। চলচ্চিত্রের পর্দায় গানটি রাজ্জাক, শাবানা ও উজ্জলের ঠোঁটে ছিল। নতুন করে সঙ্গীতায়োজন করেছেন মাকসুদ জামিল মিন্টু।

সঙ্গীতজীবনের পাঁচ দশকে এখন পর্যন্ত প্রায় ১৬ হাজারের বেশি গানে কণ্ঠ দিয়েছেন। কণ্ঠশিল্পী হিসেবে ১২ বার পেয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। এ ছাড়া পেয়েছেন একুশে পদক, স্বাধীনতা পুরস্কারসহ নানা সম্মাননা। কোনো অপ্রাপ্তি কি আছে?

গানের প্রতি ভালোবাসা ছিল। তাই দিনমান গান করে গেছি। গানের সুবাদে কী পাব, কী হারাব তা নিয়ে ভাবিনি। মায়ের অনুপ্রেরণা আর বোনদের গান গাইতে দেখে ছোটবেলায় গানে তালিম নেওয়া শুরু করেছিলাম। গান করতে করতে কোথা দিয়ে যে এতগুলো বছর কেটে গেল, বুঝতেই পারিনি। আমার যত অর্জন সব সঙ্গীতকে নিয়েই। পাঁচ দশক অনেক দীর্ঘ সময়। অথচ ভাবলে আবাক লাগে, গানে গানে এতগুলো বছর কাটিয়ে দিয়েছি। স্বীকার করতে দ্বিধা নেই, অগণিত মানুষের ভালোবাসাই আমাকে এগিয়ে চলার শক্তি জুগিয়েছে।

নতুন প্রজন্মের অনেকে ষাট-সত্তর দশকের গানের সঙ্গে পরিচিত নয়। সে ক্ষেত্রে তারা জানবে কীভাবে, সঙ্গীতে সে সময়ের গানগুলো কতটা সমৃদ্ধ ছিল?

এ প্রশ্ন নিজেই নিজেকে বেশ কয়েকবার করেছিলাম। তরপরই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম, পুরনো গানগুলো নতুন আঙ্গিকে প্রকাশ করার। এর মধ্যে ৩০টির বেশি গান প্রকাশ করেছি।

এখন গান শুধু শোনার নয়, দেখার বিষয়ও। কী বলেন?

এই কথার সঙ্গে আমিও একমত। আমাদের সময় দেখার এত মাধ্যম ছিল না। তখন গানের সবচেয়ে বড় মাধ্যম ছিল রেডিও। এরপর এলো টেলিভিশন। এখন শ্রোতারা শুধু গান শুনে তৃপ্তি পান না, শিল্পীকেও দেখতে চান। আর সে কারণে শিল্পীরা এখন মিউজিক ভিডিওর দিকে ঝুঁকছেন। 

আপনার নতুন একক অ্যালবামের খবর কী?

নতুন অ্যালবামের পরিকল্পনা করা হচ্ছে। কয়েকটি নতুন গানে কণ্ঠও দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া দেশের গানের একটি অ্যালবাম প্রকাশের চিন্তা করছি।



Designed by Copyright © 2014
Powered by Blogger.