সর্বশেষ সংবাদ

ইনি সঞ্জয় না,Ranbir Kapoor

পর্দার খলনায়কের ঘটনাবহুল জীবনকে পর্দায় ফুটিয়ে তুলতে কোনও কমতি রাখছেন না Ranbir Kapoor। পাশ দিয়ে হেঁটে গেলে নাকি অনেক সেলিব্রিটিও ভুল করে ফেলছেন তাঁকেইনি সঞ্জয় না,Ranbir Kapoor সঞ্জয় ভেবে।

ইনি সঞ্জয় না,Ranbir Kapoor

 কিছুদিন আগেই নয়ের দশকের লুকে শুটিং ফ্লোরে দেখা গিয়েছিল তাকে। পিছনে ঘাড় পর্যন্ত লম্বা চুল। মেরুন রঙের শার্টের উপর কালো হাফ জ্যাকেটের সেই লুকে দর্শকদের মন জয় করেছিলেন সঞ্জয়রূপী রণবীর। দূর থেকে দেখে মনে হচ্ছিল যেন সত্যিই 'সাজন' ছবির অমন দাঁড়িয়ে রয়েছে।

তবে এবারে কাছ থেকেও যেন কাছ থেকেও বলিউডের সঞ্জুবাবার লুক থেকে আলাদা করা যাচ্ছে না রণবীরের সাম্প্রতিক লুক। নতুন লুকে রণবীরের মাথার চুল কিছুটা কমে গিয়েছে। মুখে কাঁচাপাকা দাঁড়ি রাখা হয়েছে। গোঁফ উপরের দিকে পাকানো।

জানা গিয়েছেন,এখন সেই দৃশ্য শুট করা হচ্ছে। যখন কারাবাস কাটিয়ে পুনের ইয়েরওয়াড়া জেল থেকে বেরিয়ে এসেছিলেন সঞ্জয়।

১৯৯৩ সালে মুম্বাইয়ের ধারাবাহিক বিস্ফোরণ মামলায় সাজাপ্রাপ্ত ছিলেন তিনি। ৪২ মাসের কারাবাসের শেষ মুহূর্তগুলো এই জেলেই কাটিয়েছিলেন সঞ্জয়। তার বেরিয়ে আসার মুহূর্ত ছিল আবেগঘন।

সম্প্রতি প্রযোজক রাজকুমার হিরানির সঙ্গে এক অ্যাওয়ার্ড ফাংশানে গিয়েছিলেন রণবীর। সেখানে আবার তাকে পাওয়া যায় আলাদা লুকে। সেটিও সঞ্জয়ের বায়োপিকের জন্যই বলে জানান রণবীর।

ছবির ষাট শতাংশ শুটিং শেষ হয়ে গিয়েছে বলে জানান রণবীর। জানান ,সঞ্জয় দত্তের মতো মানুষের চরিত্রে অভিনয় করতে পেরে তিনি গর্বিত।

এই সুযোগ দেওয়ার জন্য তিনি প্রযোজক বিধুবিনোদ চোপড়ার কাছে যতটা কৃতজ্ঞ, ততটাই কৃতজ্ঞ সঞ্জয়ের কাছেও যিনি তাকে অনুমতি দিয়েছেন। সূত্র: ইন্ডিয়া টুডে

পর্দার খলনায়কের ঘটনাবহুল জীবনকে পর্দায় ফুটিয়ে তুলতে কোনও কমতি রাখছেন না Ranbir Kapoor। পাশ দিয়ে হেঁটে গেলে নাকি অনেক সেলিব্রিটিও ভুল করে ফেলছেন তাঁকে সঞ্জয় ভেবে।

 কিছুদিন আগেই নয়ের দশকের লুকে শুটিং ফ্লোরে দেখা গিয়েছিল তাকে। পিছনে ঘাড় পর্যন্ত লম্বা চুল। মেরুন রঙের শার্টের উপর কালো হাফ জ্যাকেটের সেই লুকে দর্শকদের মন জয় করেছিলেন সঞ্জয়রূপী রণবীর। দূর থেকে দেখে মনে হচ্ছিল যেন সত্যিই 'সাজন' ছবির অমন দাঁড়িয়ে রয়েছে।

তবে এবারে কাছ থেকেও যেন কাছ থেকেও বলিউডের সঞ্জুবাবার লুক থেকে আলাদা করা যাচ্ছে না রণবীরের সাম্প্রতিক লুক। নতুন লুকে রণবীরের মাথার চুল কিছুটা কমে গিয়েছে। মুখে কাঁচাপাকা দাঁড়ি রাখা হয়েছে। গোঁফ উপরের দিকে পাকানো।

জানা গিয়েছেন,এখন সেই দৃশ্য শুট করা হচ্ছে। যখন কারাবাস কাটিয়ে পুনের ইয়েরওয়াড়া জেল থেকে বেরিয়ে এসেছিলেন সঞ্জয়।

১৯৯৩ সালে মুম্বাইয়ের ধারাবাহিক বিস্ফোরণ মামলায় সাজাপ্রাপ্ত ছিলেন তিনি। ৪২ মাসের কারাবাসের শেষ মুহূর্তগুলো এই জেলেই কাটিয়েছিলেন সঞ্জয়। তার বেরিয়ে আসার মুহূর্ত ছিল আবেগঘন।

সম্প্রতি প্রযোজক রাজকুমার হিরানির সঙ্গে এক অ্যাওয়ার্ড ফাংশানে গিয়েছিলেন রণবীর। সেখানে আবার তাকে পাওয়া যায় আলাদা লুকে। সেটিও সঞ্জয়ের বায়োপিকের জন্যই বলে জানান রণবীর।

ছবির ষাট শতাংশ শুটিং শেষ হয়ে গিয়েছে বলে জানান রণবীর। জানান ,সঞ্জয় দত্তের মতো মানুষের চরিত্রে অভিনয় করতে পেরে তিনি গর্বিত।

এই সুযোগ দেওয়ার জন্য তিনি প্রযোজক বিধুবিনোদ চোপড়ার কাছে যতটা কৃতজ্ঞ, ততটাই কৃতজ্ঞ সঞ্জয়ের কাছেও যিনি তাকে অনুমতি দিয়েছেন। সূত্র: ইন্ডিয়া টুডে



Designed by Copyright © 2014
Powered by Blogger.