সর্বশেষ সংবাদ

রবীন্দ্রনাথের মধ্যেই আমি বড় হয়েছি : Farhine Khan Joyita

রবীন্দ্রসংগীত চর্চা করছেন এমন তরুণদের মধ্যে অন্যতম Farhine Khan Joyita। সম্প্রতি আনুষ্ঠানিকভাবে মোড়ক খোলা হলো তাঁর নতুন রবীন্দ্রসংগীতের সিডির। মা সংগীতশিল্পী মিতা হকের রবীন্দ্র পুরস্কার প্রাপ্তি উপলক্ষে গতকাল রোববার তিনি গিয়েছিলেন বাংলা একাডেমিতে। সেখানেই কথা হয় জয়িতার সঙ্গে।

রবীন্দ্রনাথের মধ্যেই আমি বড় হয়েছি : Farhine Khan Joyita

মা রবীন্দ্র পুরস্কার পেলেন, কেমন লাগছে?
খুব ভালো। মা সঠিক সময়েই সম্মাননাটি পাচ্ছেন। অনেকেই এই সম্মাননা পান অনেক বয়স হয়ে গেলে। মায়ের ক্ষেত্রে তেমনটি হয়নি।

এমন পপ জামানায় রবীন্দ্রচর্চা করছেন কীভাবে?
কঠিন প্রশ্ন। আসলে যাঁদের চর্চা করার, তাঁরা ঠিকই করছেন। সময়টা যদিও অনেক প্রচারমুখিতার। অনেকের হয়তো মেধা আছে, নানা কারণে চর্চা করতে পারছেন না। তাঁদের অনেকের হয়তো গভীরতাও আছে, অনেক চর্চা করা শিল্পীদের থেকেও ভালো হচ্ছে। কিন্তু শিল্প মানেই চর্চাটা থাকতে হবে। অনেক নতুনত্ব, অলংকার যোগ করা হলেও ভালো না হলে থাকবে না।

রবীন্দ্রনাথকে কীভাবে অনুভব করেন?
রবীন্দ্রনাথের গান মুক্তিযুদ্ধে প্রেরণা জুগিয়েছে। আমাদের প্রেম, প্রকৃতির প্রতি ভালো লাগা—কী নিয়ে তিনি লেখেননি? তাঁর রচনাগুলো আমাদের হৃদয়ের খুব কাছের। মানুষের যেকোনো মুডের ওপর তাঁর একটি গান বা কবিতা পাওয়া যাবেই। এ কারণেই তিনি সবকিছুর ওপরে।

রবীন্দ্রচর্চার প্রেরণা পাচ্ছেন কার কাছে?
আমাদের পরিবারের প্রায় সবাই রবীন্দ্রচর্চা করেন। বাবা (প্রয়াত অভিনেতা খালেদ খান) কবিতার পাশাপাশি গানও করতেন। আমাদের পড়াশোনাটা রবীন্দ্রনাথকেন্দ্রিক। ওয়াহিদুল হক ও সন্‌জীদা খাতুন আমার নানা-নানি (মিতা হকের চাচা ও চাচি)। রবীন্দ্রনাথের মধ্যেই আমি বড় হয়েছি। এটা একটা বড় প্রেরণা। বাবার কারণে নানা ধরনের বহু গান শোনা হয়েছে। তবে ইংরেজি গান শোনার অভ্যাস তৈরি হয়নি, উপভোগও করি না। বাংলা, হিন্দি, ভারতীয় শাস্ত্রীয় সংগীত প্রচুর শুনেছি। এ রুচি তৈরিতে বাবার অবদান ছিল।

নতুন অ্যালবাম ‘কত মধুসমীরে’ নিয়ে কেউ কিছু বলেছেন?
অ্যালবামটা আরও আগে প্রকাশিত হয়েছে। সম্প্রতি হলো আনুষ্ঠানিকতা। গানগুলো নির্বাচন করা হয়েছে একটা থিমের ওপর। মারমার কাটকাট বিক্রি হচ্ছে তা নয়। ভালোই বলেছেন সবাই।

রবীন্দ্রনাথের কাজ নিয়ে ব্যতিক্রম কিছু করার ইচ্ছা আছে?
‘পোয়েট অ্যান্ড দ্য পিয়ানো’ নামে একটা অনুষ্ঠান করেছিলাম। শুধু পিয়ানো বাজিয়ে রবীন্দ্রনাথের গান। সমস্যা হচ্ছে, আমাদের পড়াশোনাটা কম। গান করতে গিয়ে শ্রোতাকে একটু স্বস্তি দিতে হয়। সে জন্য জানার জায়গাটা পরিষ্কার হওয়া চাই। গান নিয়ে দুটি কথা বললে দর্শক আরও একটু আগ্রহী হন। শ্রোতার খানিকটা পড়াশোনা থাকলে রস আস্বাদনে তাঁদের সুবিধা হয়। কলকাতায় ‘আজ সকালের আমন্ত্রণে’ অনুষ্ঠানটিতে দেখি, নাম নেই খ্যাতি নেই এমন অনেকেই আসেন, গান করেন, কথা বলেন। মনে হয় তাঁরা কত ঋদ্ধ!



Designed by Copyright © 2014
Powered by Blogger.