সর্বশেষ সংবাদ

আমি পরিচালকনির্ভর অভিনেত্রী : Nabila

Nabila। উপস্থাপক ও অভিনেত্রী। 'আয়নাবাজি' চলচ্চিত্রের আবহে নির্মিত নাটক 'মার্চ মাসে শুটিং'-এ অভিনয় করছেন তিনি। একই সঙ্গে উপস্থাপনা করছেন ঈদের বেশ কিছু অনুষ্ঠানে। বর্তমান ব্যস্ততা ও অন্যান্য বিষয়ে কথা হলো তার সঙ্গে-

আমি পরিচালকনির্ভর অভিনেত্রী : Nabila

বলেছিলেন, ছোট পর্দায় অভিনয়ে ইচ্ছা নেই। হঠাৎ কী মনে করে সিদ্ধান্ত বদলালেন? 

উপস্থাপনা করব বলেই কখনও কোনো নাটকে অভিনয় করব না- এ কথা কিন্তু বলিনি। বলেছিলাম, যদি কোনো নাটকের গল্প পড়ে মনে হয়, কাজটা ভিন্ন ধাঁচের হবে, তাহলে অভিনয় করব। আয়নাবাজি অরিজিনাল সিরিজের 'মার্চ মাসে শুটিং' নাটকটি ব্যতিক্রমী আয়োজন মনে হয়েছে। আরেকটি কারণ, এটি 'আয়নাবাজি' ছবির মূল থিম নিয়ে নির্মিত হচ্ছে; এটি পরিচালনাও করবেন অমিতাভ রেজা। এসব দেখেই অভিনয়ে রাজি হয়েছি। কিন্তু এটাও সত্যি যে, ছোট পর্দায় অভিনয়ের চেয়ে উপস্থাপনা বেশি ভালো লাগে। কারণ উপস্থাপনা আমার ধ্যান-জ্ঞান। তাই অভিনয় নিয়ে খুব একটা ভাবি না। 

তাহলে কি ধরে নেওয়া যায়, অভিনয়ের জন্য গল্প এবং নির্মাতাকেই প্রাধান্য দেন?

এটা বললে ভুল বলা হবে না। যখন 'আয়নাবাজি' ছবির হৃদি চরিত্রে অভিনয়ের প্রস্তাব পেয়েছিলাম, তখনও সংশয়ে ছিলাম, কাহিনীর সঙ্গে মিল রেখে ছবির চরিত্রটি ঠিকভাবে তুলে ধরতে পারব কি-না। পরিচালক অমিতাভ রেজা সাহস দিয়েছিলেন বলেই কাজটা করেছি। তার নির্দেশনা অক্ষরে অক্ষরে পালন করেছি। অভিনয়ের অভিজ্ঞতা না থাকলেও ভালো কিছু করে দেখানো সম্ভব, যদি নির্দেশক পরিকল্পনামাফিক কাজ আদায় করে নিতে পারেন। বলতে দ্বিধা নেই, আমি পরিচালকনির্ভর অভিনয় শিল্পী। পরিচালকের নির্দেশনা মেনেই পর্দায় নিজেকে তুলে ধরি। 

'এক ডিশ দুই কুক' অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করে কেমন সাড়া পেলেন?

অসম্ভব সাড়া পেয়েছি। অনেকে বলেছেন, এই অনুষ্ঠান দেখার জন্য তারা অপেক্ষা করেন। কেউ কেউ এসএমএস পাঠিয়ে অনুষ্ঠানের পর্ব নিয়ে বিভিন্ন বিষয় জানতে চাইতেন। আগে যেসব অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেছি, তার বেশিরভাগই ছিল তারকাপ্রধান। তারকা এই অনুষ্ঠানেও ছিলেন, কিন্তু তাদের সঙ্গে যে বিষয় নিয়ে আড্ডা হতো, তার বিষয় ছিল ভিন্ন। যে জন্য এ অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেও আনন্দ পাচ্ছি। অতিথিদের সঙ্গে কথা বলে জেনেছি। তাদের প্রিয় মানুষ কারা, সেই মানুষদের সঙ্গে সম্পর্কের গভীরতা কতটুকু, দৈনন্দিন ব্যস্ততায় সেই সম্পর্ক কীভাবে ধরে রেখেছেন_ এমন অনেক অজানা কথা। আশার কথা হলো, 'এক ডিশ দুই কুক' প্রচার শেষ হলেও আবার নতুন একটি সিজন শুরুর পরিকল্পনা চলছে।

শুনলাম, 'আনন্দমেলা' অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করবেন? 

প্রস্তাব পেয়েছি। উপস্থাপনা করব বলেও জানিয়ে দিয়েছি। বিটিভির ঈদ আয়োজনের এই মাগ্যাজিন অনুষ্ঠানের প্রতি আকর্ষণ ছোটবেলা থেকেই। কিন্তু স্বপ্নেও ভাবিনি, 'আনন্দমেলা' উপস্থাপনার সুযোগ পাব। এই সুযোগ আমার জন্য অন্যরকম আনন্দের। শিগগিরই এর নির্মাণ শুরু হবে। এতে আমার সহ-উপস্থাপক হিসেবে থাকবেন অভিনেতা সজল।

ঈদের আর অনুষ্ঠানে...

বেশ কয়েকটি অনুষ্ঠানে উপস্থাপক হিসেবে দেখা যাবে। এরই মধ্যে এনটিভি ও এসএ টিভির দুটি অনুষ্ঠানে কাজ শুরু করেছি। আরও কয়েকটি অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ার কথা রয়েছে।



Designed by Copyright © 2014
Powered by Blogger.