সর্বশেষ সংবাদ

শ্রীলঙ্কার ছবিতে বাংলাদেশের Priota

সাইবার ক্রাইম নিয়ে নির্মিত থ্রিলারধর্মী শ্রীলঙ্কান সিনেমায় অভিনয় করলেন বাংলাদেশি অভিনেত্রী Priota,বৃহস্পতিবার সে দেশে মুক্তি পেয়েছে তার অভিনীত ছবি 'পানি মাকুলুও'। ছবিটিতে গুরুত্বপূর্ণ এক চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি।


শ্রীলঙ্কার ছবিতে বাংলাদেশের Priota
ভিন দেশে নিজের ছবি মুক্তি পাওয়া উপলক্ষে বৃহস্পতিবার  কথা বলেন এই অভিনেত্রী।

প্রিয়তা জানান, প্রথম বাংলদেশি হিসেবে শ্রীলঙ্কার সিনেমায় অভিনয় করলেন তিনি। ছবিটি নিয়েও বেশ আশাবাদী তিনি। আগামী ঢাকা ফিল্ম ফেস্টিভালে এ সিনেমার প্রদর্শনী হওয়ার কথা রয়েছে বলে জানান তিনি।

সিংহলি ভাষায় নির্মিত 'পাণি মাকুলুও' সিনেমার পরিচালক ইশ্রু ওয়েদারিংহে মুদালী এবং প্রযোজক ইউ.এ পালিয়াগুরু। ছবিতে সে দেশের কিংবদন্তী অভিনেতা সনাথ গুনাথিলকের বিপরীতে অভিনয় করেছেন আইশারা অমিতকোলা।শ্রীলঙ্কার ছবিতে বাংলাদেশের প্রিয়তা
প্রিয়তা ফারলিন ইফতেখার

সিনেমাটির গল্প সর্ম্পকে প্রিয়তা বলেন, 'এটি মূলত সাইবার ক্রাইমনির্ভর একটি সিনেমা। অচেনা ছেলের সাথে কীভাবে একটি মেয়ের পরিচয় হয় এবং এরপর ফেসুবকে যোগাযোগের এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে সম্পর্ক গড়ে ওঠে- এ কাহিনী নিয়েই সিনেমাটি'। 

সিনেমার গল্পের বর্ণনায় তিনি বলেন, 'এক পর্যায়ে ছেলেটি মেয়েটিকে ব্ল্যাকমেইল করে তার কাছ থেকে নানা উপায়ে অর্থ সম্পদ লুটে নেয়। মেয়েটি এক বান্ধবীর মাধ্যমে ওই ছেলের কাছে টাকা পাঠায়। সেই বান্ধবীই মূলত আমি। এখানে সাহসী এক চরিত্রে দর্শক আমাকে দেখতে পাবেন।'শ্রীলঙ্কার ছবিতে বাংলাদেশের প্রিয়তা
সিনেমার পোস্টার

প্রিয়তা বলেন, কাহিনীর এক পর্যায়ে খুন হয় ছেলেটি। তারপর ঘটনার রহস্য অন্যদিকে মোড় নিতে শুরু করে। ছেলেটিকে কে খুন করে তা দেখতে পর্দায় চোখ রাখতে হবে বলে রহস্য রেখে দেন এই অভিনেত্রী।

নাটক, সিনেমা কিংবা মডেলিং কোনটায় আগ্রহ বেশি- এমন প্রশ্নে প্রিয়তা বলেন, 'আমি মুম্বাইয়ে সিনেমা বিষয়ে উচ্চতর ডিগ্রী নিয়েছি। এই শিক্ষাটা কাজে লাগাতে চাই। দেশের কাজে নিজেকে নিয়োগ করতে চাই।'

গত নভেম্বরে দেশে ফিরেছেন জানিয়ে তিনি সমকালকে বলেন, দেশে ফেরার পর থেকে বেশ কিছু সিনেমায় কাজ করার ব্যাপারে কথা চলছে। গল্প পছন্দ হলে আর সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে শিগগিরই হয়তো কোনও একটায় কাজ শুরু করব। 

শুধু যে সিনেমায় অভিনয় তা নয় বরং এর বাইরে অভিনয় বিষয়ে যেকোনও কাজে অংশ নিতে চান প্রিয়তা। তিনি বলেন, অভিনয় বিষয়ে কোর্সের টিচার হিসেবে দেশে কোনও প্রতিষ্ঠানে যোগ দিয়ে কাজ করার চিন্তা-ভাবনা আছে তারা। 'বিদেশে ডিগ্রি নিয়ে যা শিখেছি তা যদি দেশে দেখাতে পারি, সেটাই হবে বড় পাওয়া'- বলেন প্রিয়তা।

দর্শকদের উদ্দেশে প্রিয়তা বলেন, 'দেশের মানুষ আমার কাজকে ভালোভাবে গ্রহণ করলে সেটাই আমার বড়প্রাপ্তি। আমি যেন আমার কাজটাকে তাদের দেখাতে পারি। যে দেশেই যায়, দিন শেষে আমি বাংলাদেশকেই প্রতিনিধিত্ব করছি।'



Designed by Copyright © 2014
Powered by Blogger.