সর্বশেষ সংবাদ

ঝুঁকি নিয়েছিলেন Priyanka


বলিউডের মতো এখন হলিউডেও কম জনপ্রিয়তা পাচ্ছেন না Priyanka চোপড়া। বিশ্বসুন্দরীর খেতাব অর্জন করলেও অনেকের মতো ঝরে যাননি তিনি। তাঁর ক্যারিয়ারের মোড় ঘুরিয়ে দেওয়া ছবির মধ্যে কোনটা পড়ে? হ্যাঁ, ‘এয়েতরাজ’। আর সবচেয়ে সফল ও জনপ্রিয়তার শীর্ষে যাওয়া ছবি? ‘ফ্যাশন’ নিশ্চিতভাবে। অথচ এই ছবিগুলোতে অভিনয় করতেই নাকি বাধা এসেছিল Priyankaর। কিন্তু ঝুঁকি নিয়েছিলেন তিনি।


ফোর্বস ম্যাগাজিনকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে Priyanka বলেন, ‘যখন আমার বয়স আরও কম ছিল, তখন আমি কখনোই দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা করতাম না। আমি আগে থেকে চলচ্চিত্র জগতের ছিলাম না। আমার ক্যারিয়ার সব সময়ই ঝুঁকিপূর্ণ ছিল। আর আমি অন্যের পরামর্শে সিদ্ধান্ত নিতাম। আমার সবচেয়ে বড় ঝুঁকি এটাই ছিল যে আমি জানতাম না আমি আসলে ঝুঁকি নিচ্ছি।’

Priyanka জানান, ২০০৪ সালে যখন তিনি ‘এয়েতরাজ’ ছবিতে খলনায়িকার চরিত্রে কাজ করছিলেন, তখন অনেকেই তাঁকে ওই ছবি থেকে সরে আসতে বলেন। ভয় পেয়েছিলেন Priyanka। কারণ, তাঁকে বলা হয়েছিল, এসব চরিত্র ক্যারিয়ারের জন্য ভালো নয়। সারা জীবন নাকি ‘ডাইনি’র চরিত্রই করে যেতে হবে!

প্রায় এমন ঘটনা আবার ঘটতে যাচ্ছিল Priyankaর সঙ্গে, ২০০৮ সালে। তখন Priyanka করছিলেন ‘ফ্যাশন’ ছবির শুটিং। তিনি বলেন, ‘আমাকে বলা হয়েছিল, মেয়েরা তখনই নারীকেন্দ্রিক চরিত্রে অভিনয় করেন, যখন পুরস্কার জেতার জন্য তাঁদের ক্যারিয়ার শেষ করতে চায়।

আমাকে পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল, আমি যেন বড় তারকাদের সঙ্গে এবং হলিউড-টাইপ সিনেমায় কাজ করি।’ Priyanka ভয় পাচ্ছিলেন এই ভেবে যে তিনি কোনো ভুল সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন কি না। কিন্তু এর চেয়ে ভালো সিদ্ধান্ত তিনি বুঝতে পারছিলেন না। শেষ পর্যন্ত ‘ফ্যাশন’-এর মেঘনা মাথুরের চরিত্র Priyankaকে এনে দেয় ভারতের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার।
Designed by Copyright © 2014
Powered by Blogger.